আজ থেকে ২ দিন ব্যাপী শুরু হবে জাতীয় কবিতা উৎসব

40
ঢাকা: প্রতিবছরের মতো এবারও জাতীয় কবিতা উৎসবের আয়োজন করছে জাতীয় কবিতা পরিষদ। আগামী ১ ও ২ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগার সংলগ্ন চত্বরে ৩৬তম এই কবিতা উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। এবারের আয়োজনের স্লোগান ঠিক করা হয়েছে ‌‘যুদ্ধ গণহত্যা সহে না কবিতা’।মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানায় জাতীয় কবিতা পরিষদ।

 

১-২ ফেব্রুয়ারি হবে জাতীয় কবিতা উৎসব
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তারিক সুজাত বলেন, স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে শৃঙ্খল মুক্তির ডাক দিয়ে কবিতা উৎসবের শুরু হয় ১৯৮৭ সালে। কালের পরিক্রমায় সে উৎসব সাড়ে তিন দশক অতিক্রম করেছে। এই উৎসব থেকে প্রতি বছর বাংলাদেশের কবিরা যে মর্মবাণী উচ্চারণ করেছেন তাই সমগ্র জাতির কণ্ঠস্বর হিসেবে বিবেচিত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনের অগ্নিগর্ভ থেকে জন্ম নেওয়া জাতীয় কবিতা উৎসব ও জাতীয় কবিতা পরিষদের নিরন্তর এই সংগ্রামের ইতিহাস আজ সবার জানা। আমরা অব্যাহতভাবে স্বৈরাচার, সাম্প্রদায়িকতা, মৌলবাদ, যুদ্ধাপরাধ এবং বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিচারের কথা বলে এসেছি। কবিদের দ্রোহের স্ফুলিঙ্গ থেকে জন্ম নিয়ে কী করে একটি উৎসব জাতীয় থেকে আন্তর্জাতিক রূপ নিয়েছে তার ইতিহাসও কম-বেশি সবার জানা।

তারিক সুজাত বলেন, আজ যখন দেশে দেশে অশুভ শক্তির দাপটে নিরপরাধ মানুষ বিপন্ন- নারী, শিশু, বৃদ্ধসহ সাধারণ মানুষের লাশের ওপর দাঁড়িয়ে ক্ষমতার অহমিকা দেখাচ্ছে সাম্রাজ্যবাদী শক্তি, সে সময় আমাদের এ আয়োজন। আমরা বাংলাদেশের কবিরা এবং আরও বেশ কয়েকটি দেশের কবি ও কবিতাপ্রেমীরা একত্রিত হয়ে এই উৎসবে যুদ্ধ ও গণহত্যাসহ সব অন্যায়ের প্রতিবাদ করবো। দুই দিনব্যাপী উৎসবে কবিতা পাঠ, নিবেদিত কবিতা, সেমিনার, আবৃত্তি ও সংগীতের মধ্য দিয়ে আমরা ‘যুদ্ধ গণহত্যা সহে না কবিতা’ এই স্লোগানকে মূর্ত করে তুলবো।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এই উৎসবকে সফল করার জন্য ২৩টি উপকমিটি সংবলিত একটি উৎসব পরিষদ গঠন করা হয়েছে। কবি মুহাম্মদ সামাদকে উৎসব পরিষদের সভাপতি, কবি তারিক সুজাতকে সাধারণ সম্পাদক এবং কবি শিহাব সরকারকে আহ্বায়ক করা হয়েছে। এবারের উৎসবের ঘোষণাপত্র লিখেছেন কবি আসলাম সানী। শোক প্রস্তাব পাঠ করবেন কবি আমিনুর রহমান সুলতান। এবং উৎসবের উদ্বোধন করবেন কবি নির্মলেন্দু গুণ। এছাড়া ২ ফেব্রুয়ারি বিকেল সাড়ে ৫টায় জাতীয় কবিতা পরিষদ পুরস্কারপ্রাপ্ত কবিদের নাম ঘোষণা করা হবে।

তারা আরও জানান, এবারের কবিতা উৎসব উৎসর্গ করা হয়েছে কবি আসাদ চৌধুরী, কবি মোহাম্মদ রফিক, কবি জাহিদুল হক, কবি বুলবুল মহলানবীশ ও কবি হানিফ খানকে। উৎসবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন ভাষার কবিরা অংশ নেবেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় কবিতা উৎসবের উৎসব পরিষদের সভাপতি মুহাম্মদ সামাদ, আহ্বায়ক শিহাব সরকার, কবিতা নির্বাচন উপ-পরিষদের আহ্বায়ক আমিনুর রহমান সুলতান, সাংগঠনিক উপ-পরিষদের আহ্বায়ক দিলারা হাফিজ, অনুষ্ঠান উপ-পরিষদের আহ্বায়ক আসলাম সানী প্রমুখ।

পূর্বের খবরবাংলাদেশের নির্বাচনে ভারতের প্রভাবে যুক্তরাষ্ট্রের পিছুটান প্রশ্নে যা বললেন মিলার
পরবর্তি খবরভারতের বারাণসীর জ্ঞানবাপী মসজিদে হিন্দুপক্ষকে পুজো করতে আদালতের নির্দেশ