সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে থাকবে বিএনপি :মঈন খান

109

নিউজ২১ডেস্কঃ রাজধানী ঢাকায় বিএনপির পক্ষ থেকে পথচারীদের মাঝে নির্বাচন বর্জনের আহ্বান সম্বলিত লিফলেট বিতরণ কর্মসূচিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেছেন যে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত তাদের দল রাজপথে থাকবে।

শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) রাজধানী ঢাকায়, বিএনপির পক্ষ থেকে পথচারীদের মাঝে নির্বাচন বর্জনের আহ্বান সম্বলিত লিফলেট বিতরণ করা হয়। এই কর্মসূচিতে এ কথা বলেন ড. মঈন খান।

তিনি বলেন, “আমরা মৌলিক অধিকার এবং জনগণের ভোটের অধিকার ফিরে পেতে আন্দোলন করছি। আমরা রাজপথে আছি; এই স্বৈরাচারী সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত থাকবো।”

ড. মঈন জানান, তাদের দল অসহযোগ আন্দোলনের মতো সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ ও নিয়মতান্ত্রিক গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সরকারকে অপসারণ করে দেশে একটি গণমুখী সরকার প্রতিষ্ঠায় বদ্ধপরিকর।

মানুষকে অধিকার সচেতন করতে রাজপথে লিফলেট বিতরণ কর্মসূচি নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। বলেন, “প্রতিনিধিত্বমূলক সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই চালিয়ে যেতে আমরা জনগণের সঙ্গে কথা বলছি।”

তিনি প্রশ্ন করেন, আওয়ামী লীগ সরকার দেশে ব্যাপক উন্নয়ন করেছে বলে দাবি করছে; এটা ঠিক হলে জনগণের ভোটকে কেন এত ভয় পায় তারা?

তিনি বলেন, “তারা (সরকার) কেন (আসন) ভাগাভাগি ও বণ্টনের একতরফা নির্বাচন করছে? এটা এখন বাংলাদেশের ১৮ কোটি মানুষের প্রশ্ন।”

আবার অবরোধ

এদিকে, ১০ দিন বিরতির পর রবিবার (২৪ ডিসেম্বর) আবার সারাদেশে দিনব্যাপী সড়ক-রেল-নৌপথ অবরোধ কর্মসূচি পালন করতে যাচ্ছে বিএনপি ও সমমনা রাজনৈতিক দলগুলো।
গত ৩১ অক্টোবর থেকে এটি হবে তাদের দ্বাদশ দফা অবরোধ কর্মসূচি এবং ২০ ডিসেম্বর সরকারের বিরুদ্ধে অসহযোগ আন্দোলন ঘোষণার পর প্রথম দফা অবরোধ।

বিএনপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে রবিবার সকাল ৬টায় অবরোধ শুরু হয়ে, শেষ হবে সন্ধ্যা ৬টায়।

বিএনপি ও সমমনা দলগুলো, গত ২৯ অক্টোবর থেকে ১১ দফায় ২২ দিন অবরোধ পালন করেছে। আর, চার দফায় হরতাল কর্মসূচি পালন করেছে পাঁচ দিন।

অবশেষে, ২০ ডিসেম্বর অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেয় বিএনপি ও সমমনা দলগুলো।

পূর্বের খবরইত্তেফাকের ৭১ বছরে পদার্পণঃ বাংলাদেশ ও সাংবাদিকতার দাবি
পরবর্তি খবরদেশের গার্মেন্টস সেক্টরে ১ জানুয়ারি থেকে ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি