শ্রমিকদের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের অধিকার রক্ষায় বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

91

অনলাইন ডেস্কঃ বাংলাদেশে শ্রমিকদের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের অধিকার রক্ষা এবং শ্রমিক ও শ্রমিক নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ফৌজদারি অভিযোগের তদন্তের জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার (৮ নভেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার এক বিবৃতিতে বলেন, “শ্রমিক ও ট্রেড ইউনিয়ন সংশ্লিষ্টদের ওপর চলমান নিপীড়ন নিয়েও আমরা উদ্বিগ্ন”।

বিবতিতে বেসরকারি খাতের যেসব প্রতিষ্ঠান শ্রমিকদের যুক্তিসংগত দাবি মেনে নিয়েছে তাদের প্রশংসা করা হয়। পোশাক শ্রমিকদের জন্য যে ন্যূনতম মজুরি নির্ধারণ করা হয়েছে তা পুনর্বিবেচনা করার আহ্বান জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মজুরি বৃদ্ধি এমনভাবে করতে হবে, যাতে শ্রমিক ও তাঁদের পরিবার ক্রমশ যে অর্থনৈতিক চাপে মুখে পড়ছে, তার সমাধান নিশ্চিত হয়।

পাশাপাশি ন্যূনতম মজুরির দাবিতে বাংলাদেশে সাম্প্রতিক ‘শ্রমিকদের বিরুদ্ধে সহিংসতার’ পাশাপাশি বৈধ শ্রমিক ও ট্রেড ইউনিয়ন কার্যক্রমকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করার নিন্দা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

ম্যাথিউ মিলার বলেন, গত সপ্তাহে কারখানার শ্রমিক ও সম্মিলিত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সদস্য রাসেল হাওলাদার (২৬) নামে এক যুবকের পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়ার খবরে আমরা মর্মাহত। এ ছাড়া, ঢাকার একটি কারখানার ভেতরে বিক্ষোভকারীদের আগুনে ৩২ বছর বয়সী শ্রমিক ইমরান হোসেনের মৃত্যুতে আমরা শোকাহত। তাদের পরিবার ও বৃহত্তর শ্রমিক সমাজের প্রতি আমরা সমবেদনা জানাই।

ম্যাথিউ মিলার বলেন, সরকারকে অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে, শ্রমিকেরা সহিংসতা, প্রতিশোধ বা ভয় প্রদর্শনের ভীতি ছাড়াই সংগঠন ও সম্মিলিত দর–কষাকষির স্বাধীনতার অধিকার প্রয়োগ করতে সক্ষম হন।

ম্যাথিউ মিলার বলেন, “বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাপী কাজের মাধ্যমে আমরা এই মৌলিক মানবাধিকারগুলো এগিয়ে নিতে দৃঢ়ভাবে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ”।

পূর্বের খবরবাংলাদেশের মানবাধিকার রেকর্ড যাচাই করবে জাতিসংঘ
পরবর্তি খবরবিএনপি চতুর্থ দফায় ৪৮ ঘণ্টার সর্বাত্মক অবরোধ ডাকল