সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে ৭৩১টি বাতিল, গৃহীত ১৯৮৫টি

74

বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যাচাই-বাছাই শেষে ৭৩১টি মনোনয়নপত্র বাতিল, ১৯৮৫টি মনোনয়নপত্র গৃহীত হয়েছে।

মনোনয়ন প্রত্যাশীদের জমা দেয়া মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে মোট ১৯৮৫টি মনোনয়নপত্র বৈধ বলে বিবেচিত হয়েছে।
প্রত্যাশীদের জমা দেয়া মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে মোট ১৯৮৫টি বৈধ বলে বিবেচিত হয়েছে।

ঢাকাঃ দেশের আগামী ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে দেশের ৩০০টি আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের জমা দেয়া মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষ হয়েছে। যাচাই-বাছাই শেষে, মোট ১৯৮৫টি মনোনয়নপত্র বৈধ বলে বিবেচিত হয়েছে। আর, ৭৩১ টি মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ইসি সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, “সারাদেশে দাখিল করা ২৭১৬টি মনোনয়নপত্রের মধ্যে মোট ১৯৮৫টি গ্রহণ করা হয়েছে এবং ৭৩১টি বাতিল করা হয়েছে।”

গত শুক্রবার থেকে শুরু হয় ৩০০ আসনে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই। ইসি সচিবালয়ের উপসচিব মাহবুবর রহমান বলেন, “৭৩১টি মনোনয়নপত্রের অধিকাংশই তিনটি কারণে বাতিল করা হয়েছে। কারণগুলো হলো, স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জমা দেয়া ১ শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষরে অমিল, ঋণ ও ইউটিলিটি বিলের খেলাপি এবং দ্বৈত নাগরিকত্ব।”

মনোনয়নপত্র প্রত্যাখ্যান বা গ্রহণের বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে মঙ্গলবার থেকে সংক্ষুব্ধ প্রার্থীরা নির্বাচন কমিশনে আপিল করতে পারবেন। নির্বাচন কমিশন ইতোমধ্যে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রার্থীদের কাছ থেকে আবেদন গ্রহণের জন্য নির্বাচন ভবনে ১০টি বুথ স্থাপন করেছে।

৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত আপিল গ্রহণ করা হবে। আপিলগুলো ১০ ডিসেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত নিষ্পত্তি করা হবে। ইসি প্রতিদিন ১০০টি আপিল শুনবে এবং নিষ্পত্তি করার চেষ্টা করবে।

প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর। সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসার ১৮ ডিসেম্বর প্রতিদ্বন্দ্বীদের মধ্যে নির্বাচনী প্রতীক বিতরণ করবেন। প্রার্থীরা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত (ভোট গ্রহণের ৪৮ ঘন্টা আগে) নির্বাচনী প্রচারে যেতে পারবেন।

পূর্বের খবরএবার ১০ম দফা বিএনপির ৬ ও ৭ ডিসেম্বর অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা
পরবর্তি খবরবাংলাদেশে শান্তিপূর্ণ অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র: মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর