বিশ্বের ৮০ শতাংশ ক্ষুধার্ত মানুষই গাজায় : জাতিসংঘ

98
অনলাইন ডেস্কঃ ফিলিস্তিনের যুদ্ধবিধ্বস্ত গাজায় ক্ষুধার্ত মানুষের খাবারের জন্য হাহাকার। গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর হামলা শততম দিন পার করেছে। ইসরায়েলি সেনাদের অব্যাহত হামলার কারণে দেশটিতে মানবিক সংকট ব্যাপকহারে বেড়েছে। সেনাদের বোমাবর্ষণের কারণে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে পুরো গাজা উপত্যাকা। একইভাবে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ক্ষুধার্ত মানুষের তালিকা।

জাতিসংঘ জানিয়েছে, বিশ্বের ক্ষুধার্ত মানুষের ৮০ শতাংশই গাজার বাসিন্দা। দেশটির উপকূলীয় অঞ্চলে ২৩ লাখ মানুষের বসবাস রয়েছে। যারা দুর্ভিক্ষ ও বিপর্যয়কর ক্ষুধার মুখোমুখি অবস্থার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।

জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গাজার প্রত্যেক মানুষই এখন ক্ষুধার্ত। তাদের মধ্যে চার ভাগের একভাগ মানুষ অনাহারে রয়েছেন।

বিশেষজ্ঞরা আরও জানান, সেখানে পাঁচ বছরের নিচে তিন লাখ ৩৫ হাজার শিশু রয়েছে, যারা অপুষ্টিতে ভুগছে। উপত্যাকাজুড়ে ক্ষুধার্তদের সংখ্যা বাড়তে থাকায় সেখানে পুরো একটি জেনারেশন অপুষ্টির ঝুঁকিতে পড়তে যাচ্ছে।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ইসরায়েলের অব্যাহত হামলায় নতুন করে আরও ৩৫০ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। এছাড়া নিহত হয়েছেন আরও ১৬৩ জন।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরায়েলি বাহিনীর হামলার কারণে আরও অনেকে পাথরের নিচে চাপা পড়ে আছেন। তবে তাদের কাছে উদ্ধারকারীরা পৌঁছাতে পারেনি। এ ছাড়া গত ৭ অক্টোবর থেকে চলমান ইসরায়েলি হামলার কারণে এখন পর্যন্ত ২৪ হাজার ৪৪৮ জন নিহত হয়েছেন। এ সময়ে আহত হয়েছেন আরও ৬১ হাজার ৫০৪ জন।

পূর্বের খবরপাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায় যানবাহন নিয়ে পদ্মায় ফেরিডুবি
পরবর্তি খবর৭ ফেব্রুয়ারি দিল্লি সফরে যাবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী