বাংলাদেশ অবশ্যই অগ্নিসংযোগের মতো দুর্যোগ কাটিয়ে উঠবে: শেখ হাসিনা

53

রবিবার (১২ নভেম্বর) নরসিংদী জেলায়, ঘোড়াশাল-পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরির (জিপিইউএফএফ) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি। শেখ হাসিনা বলেন, “আমরা যেভাবে প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করি, সেভাবে অগ্নিসংযোগের মতো মানবসৃষ্ট দুর্যোগ কাটিয়ে বাংলাদেশকে অবশ্যই এগিয়ে নিয়ে যাবো। আমি দেশবাসীকে যেকোনো পরিস্থিতি সাহসের সঙ্গে মোকাবেলা করতে বলছি।”

তিনি বলেন, “বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। যুদ্ধ, অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা ও বৈশ্বিক মুদ্রাস্ফীতির মতো বহিরাগত কারণে দ্রব্যমূল্য বেড়েছে। তাই এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদি রাখবেন না। যাতে বাংলাদেশকে কখনো খাদ্যের জন্য কারো কাছে হাত পাততে না হয়।”

শেখ হাসিনা বলেন, “বাংলাদেশ তার উন্নয়ন যাত্রায় বারবার বাধার সম্মুখীন হয়েছে। কিন্তু কেউই এর অগ্রগতি ঠেকাতে পারেনি। বাংলাদেশের এই অগ্রযাত্রাকে আর কেউ আটকাতে পারবে না।”

তিনি বলেন, “বিএনপি শাসনামলে গাইবান্ধা, টাঙ্গাইলসহ বিভিন্ন স্থানে সারের দাবিতে আন্দোলন করার সময় বেশ কয়েকজন কৃষক নিহত হয়েছেন। এই সার নিরবচ্ছিন্নভাবে বিতরণ ও আমদানির কারণে, গত ১৫ বছরে দেশে কোথাও ইউরিয়া সারের কোনো ঘাটতি দেখা যায়নি। এখন দেশে পর্যাপ্ত পরিমাণ সারের মজুদ রয়েছে।”

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতির মূল ভিত্তি হলো, সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারোর প্রতি বৈরিতা নয়। আর, এই নবনির্মিত সার কারখানা আমাদের পররাষ্ট্র নীতির একটি উদাহরণ। কারণ বন্ধুপ্রতিম দেশগুলো বাংলাদেশকে বৃহৎ কারখানা নির্মাণে সহায়তা করেছে।”

বিএনপির ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ: ১০ ঘন্টায় ৯টি অগ্নিসংযোগ

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি ও সমমনা রাজনৈতিক দলগুলো তাদের এক দফা দাবিতে আরও ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচি পালন করছে। রবিবার (১২ নভেম্বর) সকাল ৬টায় শুরু হয়েছে এই অবরোধ; শেষ হবে মঙ্গলবার সকাল ৬টায়। যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় সারাদেশে বিজিবি সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে এখন পর্যন্ত ৯টি অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

অগ্নিসংযোগ, উত্তেজনা ও সহিংসতার আশঙ্কা সত্ত্বেও, রাজধানী ঢাকার সড়কে গণপরিবহন ও যাত্রীদের উপস্থিতি আগের অবরোধের তুলনায় বেড়েছে। ইতোমধ্যে বিদ্যালয়গুলোতে বার্ষিক পরীক্ষা শুরু হওয়ায়, সকালে অভিভাবকদের তাদের সন্তানদের নিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে দেখা গেছে। ঢাকার রাস্তায় অধিক সংখ্যক রিকশা চলাচল করলেও, ব্যক্তিগত যানবাহন চলাচল করেছে কম। তবে, সড়কে গণপরিবহনের সংখ্যা বেড়েছে।

এর আগে শনিবার(১১ নভেম্বর) এক ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অবরোধ সফল করার জন্য দেশবাসী ও বিএনপি সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানান। সংবাদপত্র বা গণমাধ্যমের যানবাহন, অ্যাম্বুলেন্স এবং অক্সিজেন সিলিন্ডার ও ওষুধ বহনকারী যানবাহন এই অবরোধের আওতাবহির্ভূত থাকবে বলে জানান তিনি।

১০ ঘণ্টায় ৯টি অগ্নিসংযোগ: ফায়ার সার্ভিস

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সূত্রে জানা গেছে, শনিবার (১১ নভেম্বর) রাত ৮টা থেকে রবিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত সারাদেশে মোট ৯টি অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স মিডিয়া সেলের স্টেশন অফিসার তালহা বিন জসিম বলেন, “ঢাকার যাত্রাবাড়ী, গুলিস্তান, গাবতলী, নটরডেম কলেজের কাছে, রূপনগর, সূত্রাপুর ও মিরপুর এলাকায় ৭টি অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।” তিনি আরো জানান, “একই সময়ে গাজীপুর ও বরিশালে, যথাক্রমে একটি পিকআপ ভ্যান ও একটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়েছে।”

১৫২ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

বিএনপি, জামায়াত ও সমমনা বিরোধী দলগুলোর ডাকা সর্বশেষ ৪৮ ঘণ্টার দেশব্যাপী অবরোধ চলাকালে আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সারাদেশে ১৫২ প্লাটুন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) মোতায়েন করা হয়েছে। বিজিবি সদর দপ্তরের জনসংযোগ কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পূর্বের খবরবিএনপিকে নির্বাচনে আনতে মরিয়া কূটনীতিকপাড়ায়
পরবর্তি খবরসুর পাল্টে ব্লিঙ্কেন বললেন, ইসরায়েলে নির্বিচারে অনেক বেশি ফিলিস্তিনিকে হত্যা করা হচ্ছে