বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টাপাল্টি বিবৃতি কেন!

74

নিউজ২১ডেস্কঃ বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই বন্ধু প্রতিম দেশ রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টাপাল্টি বিবৃতি কেন দিচ্ছে!  বিদেশি শুভাকাঙ্ক্ষীদের সহযোগিতা ছাড়াই জাতীয় নির্বাচন করতে সক্ষম বাংলাদেশ। শনিবার (২৫ নভেম্বর) রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভারের বরাত দিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে এমনটা দাবি করেছে ঢাকাস্থ রাশিয়ান দূতাবাস।

পোস্টে বলা হয়, স্বাধীন, বিদেশি শুভাকাঙ্খীদের সহযোগিতা ছাড়াই বিদ্যমান আইন অনুযায়ী ২০২৪-এর ৭ জানুয়ারির দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন করতে সক্ষম বাংলাদেশ। বাংলাদেশি কর্তৃপক্ষের প্রতি এমন আত্মবিশ্বাস আছে রাশিয়ার।

পোস্টে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা। বিশেষ করে স্বচ্ছতা এবং অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিতে এমন করা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে দূতাবাসের পোস্টে আরও বলা হয়, অক্টোবরের শেষের দিকে বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস এবং বিরোধী দলের শীর্ষ নেতাদের বৈঠকের বিষয়ে খবর পাওয়া যায়। বৈঠকে তারা দেশে ব্যাপক সরকারবিরোধী বিক্ষোভ সংগঠিত করার পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করেছেন বলে জানা গেছে। বিশেষ করে, আমেরিকান রাষ্ট্রদূত তার কথোপকথনে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে, কর্তৃপক্ষ ‘শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে’ অংশগ্রহণকারীদের বিরুদ্ধে শক্তি প্রয়োগ করলে তথ্য সহায়তা প্রদান করবে। দশ বছর আগেও রাশিয়া একই রকম দৃশ্য দেখেছে বলেও পোস্টে অভিযোগ করা হয়।

তবে রাশিয়ার এই বিবৃতির পর ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস এক বিবৃতিতে বলেছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কোনো দলকে সমর্থন করে না, তারা বাংলাদেশে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চায়। রাশিয়া ইচ্ছাকৃতভাবে রাষ্ট্রদূত পিটার হাস সম্পর্কে ভুল তথ্য ছড়াচ্ছে। এর আগে সবশেষ ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে বাংলাদেশকে নিয়ে দুই পরাশক্তির টানাটানি লক্ষ্য করা গিয়েছিল।

 

পূর্বের খবরযুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ কে মিথ্যা মামলা ও হত্যার হুমকি
পরবর্তি খবরএকতরফা নির্বাচনে ভোটারদের অংশগ্রহণ বাড়ানোই চ্যালেঞ্জ ইসির