পোপের সেঞ্চুরিতে বড় লিডের খোঁজে ইংল্যান্ড

36

খেলাধূলা ডেস্ক

ওলি পোপ যেন ধু ধু মরুভূমিতে পানির কুয়োর দেখা পেয়েছেন। ইংল্যান্ডের অন্য ব্যাটাররা যখন রান না পেয়ে হাপিত্যেশ করছেন, পোপের ব্যাটে ছুটেছে রানের ফোয়ারা। রানের সে বারিধারায় ভেসে এখন বড় লিডের খোঁজে ইংল্যান্ড। তার ১৪৮* রানের ইনিংসে চড়ে দিন শেষে অস্ট্রেলিয়ার লিড গিয়ে ঠেকেছে ১২৬-এ।

তৃতীয় দিনের শুরুটা স্বাগতিক ভারতের মনমতো হয়নি। ৭ উইকেটে ৪২১ রান নিয়ে দিন শুরু করে তারা। অথচ ১৫ রান যোগ করতেই শেষ তিন উইকেট খোয়া যায় তাদের। ৪৩৬ রানে অলআউট হওয়া ভারত লিড পায় ১৯০ রানের।

ইংলিশদের পক্ষে বোলিংয়ে চমক দেখান দলের ’চতুর্থ স্পিনার’ জো রুট। ৭৯ রানে ৪ উইকেট নেন এই অফব্রেক বোলার।

প্রথম ইনিংসে অতি আক্রমণাত্মক বাজবল খেলতে গিয়ে হাড়গোড় বেরিয়ে পড়ে ইংলিশ ব্যাটিং লাইনআপের। তবু দ্বিতীয় ইনিংসেও নিজেদের সে আদর্শ ছেড়ে দেয়নি ইংল্যান্ড। তাতে ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার জ্যাক ক্রলি (৩১) এবং বেন ডাকেট (৪৭) সেট হয়েও উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে এসেছেন।

তবে তিনে নামা ওলি পোপ সে ধারায় কিছুটা ছেদ টানেন। বাজবলের উন্মত্ততার চেয়ে দেখেশুনে খেলাকে প্রাধান্য দেন এই ২৬ বছর বয়সী এই ব্যাটার। তাতে দিন শেষে দলের সবচেয়ে বড় ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন পোপ। ২০৮ বলে ১৪৮ রানের ইনিংস খেলে এখনো ব্যাটিংয়ে আছেন তিনি।

ইংল্যান্ডের লিডকে বড় করতে আপাতত একাই সংগ্রাম করতে হচ্ছে পোপকে। পরের ব্যাটারদের মধ্যে শুধু উইকেটকিপার-ব্যাটার বেন ফোকস কিছুটা সঙ্গ দিয়েছিলেন তাকে। ষষ্ঠ উইকেটে এই দুজনের জুটি থেকে আসে ১১২ রান।

তবে অক্ষর প্যাটেলের নিচু হয়ে আসা বলে ফোকস (৩৪) বোল্ড হয়ে ফিরলে আবারও সঙ্গীহীন হয়ে পড়েন পোপ।

এদিকে ব্রিসবেন টেস্টে জয় দেখছে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৯৩ রানে বেঁধে ফেলে তারা। যার ফলে ২১৫ রানের লিড নিয়েইও সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাদের। তিনটি করে উইকেট নিয়ে ক্যারিবিয়ানদের বড় লিডের স্বপ্ন ধূলিসাৎ করেন জশ হ্যাজেলউড এবং নাথান লায়ন।

২১৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে তৃতীয় দিন শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ২ উইকেটে ৬০ রান। জয়ের জন্য আর ১৫৬ রান। ৩৩ রানে ব্যাট করছেন ওপেনার স্টিভেন স্মিথ, ৯ রান নিয়ে তাকে সঙ্গ দিচ্ছেন ক্যামেরন গ্রিন।

পূর্বের খবরজাতিসংঘের আদালত গাজায় যুদ্ধ বিরতির আদেশ দেয়নি, ইসরাইলকে গণহত্যা প্রতিরোধে নির্দেশ দিয়েছে
পরবর্তি খবরটানা ৩ ম্যাচ হারল তামিমের বরিশাল