পাঠ্যক্রম নিয়ে সমালোচনা, চার শিক্ষক গ্রেফতার

375

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক নিয়ে সমালোচনা ও মিথ্যা তথ্য প্রচারের অভিযোগে চারজন শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম (দক্ষিণ) বিভাগ।

 

এর আগে এ বিষয়ে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের সহকারী সচিব আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

 

মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেন, শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে অপ্রকাশিত বই প্রকাশসহ বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা তথ্য প্রকাশ চালিয়ে আসছিল কিছু অজ্ঞাত ব্যক্তি।

তিনি বলেন, অজ্ঞাত এই ব্যক্তিরা ফেইসবুক আইডি, ফেইসবুক গ্রুপ ও পেইজে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ছবি ব্যবহার করে সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলার অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। এই সব ফেসবুক গ্রুপ, ফেসবুক পেইজ চলমান শিক্ষানীতির বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও শিক্ষানীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনের বিভিন্ন তথ্য প্রচার করা হতো।

এমন অভিযোগে আদালতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়। মামলার তদন্তে নেমে এই দুজনকে গ্রেফতার করে ডিবির সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইমের দক্ষিণ বিভাগ।

ডিবি জানায়, হাসনাত কবির অনলাইন ও অফলাইনে স্কুলের শিক্ষার্থীদের গণিত ক্লাশ নিতেন। গণিত শিক্ষা বিষয়ক তার ফেসবুক পেইজ, গ্রুপ এবং ইউটিউব চ্যানেল আছে। তিনি তার এসব পেইজ এবং গ্রুপগুলো নতুন শিক্ষা করিকুলাম নিয়ে বিভিন্ন বিভ্রান্তিকর বক্তব্য এবং এনসিটিবির কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথাপোকথন রেকর্ডিং বিনা অনুমতিতে প্রকাশ করছেন।

 

 

আরেক গণিত শিক্ষক গোলাম রাব্বী স্কুল শিক্ষার্থীদের গণিত পড়াতেন। তারা দুজনেই বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে অনলাইনে গ্রুপ খুলে নানাভাবে সমালোচনা করে সাইবার নিরাপত্তা আইনে বিভিন্ন ধারায় অপরাধ করছেন।

 

কাজী সাইফুল হক ও জাহাঙ্গীর কবির সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শিক্ষাক্রম নিয়ে সমালোচনা ও শহিদ মিনারে মানববন্ধনের আয়োজন করে।

পূর্বের খবরব্যর্থতা নিয়ে পদত্যাগ করছেন ইসরাইলি সামরিক গোয়েন্দাপ্রধান
পরবর্তি খবরআসন্ন সংসদ নির্বাচনের তফশিলের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট