সারাদেশে নির্বাচনের প্রতিবাদে হরতাল, বিভিন্ন স্থানে অগ্নিসংযোগ

58

নির্বাচনের প্রতিবাদে হরতাল, বিভিন্ন স্থানে অগ্নিসংযোগ করছে বিএনপি ও তার সহযোগীর।বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ রবিবার (৭ জানুয়ারি) এই নির্বাচন বর্জন করেছে অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি এবং এর সমমনা দলগুলো।

নির্বাচনের প্রতিবাদে বিএনপি ও সমমনা বিরোধী দলগুলোর ৪৮ ঘণ্টার হরতাল আহবান করেছে।
নির্বাচনের প্রতিবাদে বিএনপি ও সমমনা বিরোধী দলগুলোর ৪৮ ঘণ্টার হরতাল আহবান করেছে।

 

অনলাইন ডেস্কঃ সারাদেশে নির্বাচনের প্রতিবাদে বিএনপি ও সমমনা বিরোধী দলগুলোর ৪৮ ঘণ্টার হরতাল আহবান করেছে। শনিবার (৬জানুয়ারি) সকাল ৬টায় শুরু হয়েছে এই হরতাল, শেষ হবে সোমবার (৮ জানুয়ারি) সকাল ৬টায়। অগ্নিসংযোগসহ কিছু সহিংস ঘটনায় অতিবাহিত হয় নির্বাচনের আগের দিন।

রবিবারের (৭ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিপুল সংখ্যক মানুষ ঢাকা শহর ছেড়েছেন। আর ঢাকার সড়কে অন্যান্য দিনের তুলনায় যানবাহনের সংখ্যা কম।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বৃহস্পতিবার (৪ জানিয়ারি) এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এই হরতালের ঘোষণা দেন।

উল্লেখ্য যে বাংলাদেশে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল রয়েছে ৪৪টি। এর মধ্যে ২৭টি রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

আর; বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি –এলডিপি, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি-বিজেপি, ইনসানিয়াত বিপ্লব বাংলাদেশ, খেলাফত মজলিস, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ, জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন-এনডিএম, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-বাংলাদেশ জাসদ; নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না।

এসব দলের অধিকাংশ বিএনপির সমমনা রাজনৈতিক দল হিসেবে পরিচিত এবং তারা বিএনপির সঙ্গে অভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে।

ফাঁকা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক

বিএনপির ডাকা ৪৮ ঘণ্টার হরতাল কর্মসূচির প্রথম দিনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জ অংশে যানবাহন ও যাত্রীর চাপ নেই বললেই চলে।

শনিবার (৬ জানুয়ারি) সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড়, সাইনবোর্ড এলাকা ছিলো প্রায় ফাঁকা।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড়, সাইনবোর্ড এলাকা ছিলো প্রায় ফাঁকা। ৬ জানুয়ারি, ২০২৪।
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড়, সাইনবোর্ড এলাকা ছিলো প্রায় ফাঁকা। 

পুলিশের দাবি, রবিবার জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাওয়ায় শনিবার যান চলাচলে কিছু বিধিনিষেধ রয়েছে। সে কারণে যানবাহনের চাপ কম রয়েছে।

সকাল থেকেই অল্প সংখ্যক দূরপাল্লার যানবাহন ছেড়ে যাচ্ছে। মহাসড়কে আঞ্চলিক যানবাহন থাকলেও, যাত্রীর অভাবে দীর্ঘক্ষণ বাসস্ট্যান্ডে অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

জরুরি কাজ ছাড়া সাধারণ মানুষ বাইরে আসেনি। অধিকাংশ দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকায় টিকিট কাউন্টারগুলোতে সুনসান নিরবতা বিরাজ করতে দেখা গেছে।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল হক জানান, রবিবার জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাওয়ায় শনিবার যান চলাচলে কিছু বিধিনিষেধ রয়েছে।

তিনি আরো জানান, শনিবার অনেক অফিস বন্ধ থাকায় যানবাহনের চাপ কম রয়েছে। তবে মহাসড়কে কোথাও কোনো বিশৃঙ্খলা ঘটেনি।

বেনাপোল এক্সপ্রেসে আগুন

ঢাকার গোপীবাগ এলাকায়, বেনাপোল এক্সপ্রেস নামের একটি ট্রেনে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়েছে। আগুনে ট্রেনটির অন্তত ৫টি বগি সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।

এসময় দগ্ধ হয়ে অন্তত চার যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। প্রাণহানির সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) রাত ৯টার দিকে ট্রেনটিতে আগুন লাগে। কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের ম্যানেজার মাসুদ সারোয়ার জানান, গোপীবাগে বেনাপোল এক্সপ্রেসের ৫টি বগিতে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা আগুন দিয়েছে।

এ ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিসের মিডিয়া সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তালহা বিন জসীম।

শিবপুরে ভাঙচুর, আহত ১০

নরসিংদী-৩ (শিবপুর) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মোল্লার ‌নির্বাচনি ক্যাম্পে এবং সমর্থক কর্মীদের বাড়িতে ভাঙচুর ও হামলার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ১০জন। শনিবার বিকালে শিবপুর উপজেলা দুলালপুর ইউনিয়ন এই ঘটনা ঘটে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মোল্লা জানান, বিকালে তার সমর্থক আফজাল, মুক্তার মেম্বার ও নাসির মেম্বার, লতিফ এর বাড়িতে নৌকার সমর্থকরা হামলা চালায়। এতে আহত হয় ১০ জন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মোল্লা আরো জানান, নির্বাচনের আগের দিন এই ধরনের ঘটনার মাধ্যমে আতঙ্ক সৃষ্টির অপচেষ্টা করছে নৌকার সমর্থকরা।

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ্ মো. সজীব জানান, তিনি এই বিষয়ে জানেন এবং আইনশৃঙ্খলা রাক্ষাকারী বাহিনী ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।

বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে আগুন

ময়মনসিংহের নান্দাইল ও গফরগাঁও উপজেলার দুইটি ভোটকেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে গফরগাঁও ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডে পরশীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং নান্দাইল সিংরইল ইউনিয়নের হরিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এই আগুন লাগানোর ঘটনা ঘটে।

জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসার দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী জানান, ভোরে বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে স্থানীয় বাসিন্দারা ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়। দমকল কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

অপরদিকে জেলার নান্দাইল উপজেলার ৮ নম্বর সিংরইল ইউনিয়নের হরিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে কে বা কারা আগুন ধরিয়ে দেয়। ওই বিদ্যালয়েও ভোট কেন্দ্র রয়েছে।

পুলিশ সুপার মাছুম আহামদ ভূঞা জানান, প্রশাসনের কর্মকর্তারা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছেন। দুইটি ভোটেকেন্দ্রে আগুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

হবিগঞ্জ-৪ (চুনারুঘাট-মাধবপুর) নির্বাচনী আসনের একটি ভোট কেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১২টার দিকে চুনারুঘাট উপজেলার চন্দনা গ্রামস্থ ধলাই পাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রটিতে এই ঘটনা ঘটে। এটি নির্বাচনের ৮৪ নং কেন্দ্র বলে জানা গেছে।

চুনারুঘাট ফায়ার সাভিসের স্টেশন ইনচার্জ মো. মানিকুজ্জামান জানান, ১২টা ৫ মিনিটের দিকে খবর পেয়ে দমকল বাহিনীর সদস্যরা সেখানে পৌঁছে প্রায় সোয়া ঘণ্টার চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

গাজীপুরের কালিয়াকৈরের বাঁশতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে ওই স্কুলের অফিস কক্ষের আসবাবপত্র পুড়ে গেছে। শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) রাতে বাঁশতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে অগ্নিসংযোগ করা হয়।

কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকি জানান, এই ঘটনায় স্কুলের অফিস কক্ষের মালামাল পুড়ে যায়।

আরো আগুনের ঘটনা

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে, শনিবার (৬ জানুয়ারি) ভোরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপজেলার ঢালিপাড়া রাস্তার মাথা (মোস্তফা সিএনজি ফিলিং স্টেশনের বিপরীত পাশে) একটি পিক-আপ ভ্যানে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে একটি পিক-আপ ভ্যানে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। ৬ জানুয়ারি, ২০২৪।
চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে একটি পিক-আপ ভ্যানে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। 

কুমিরা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাকিম জানান, ভোর সাড়ে ৫টায় পিকআপে আগুন দেয়ার এ ঘটনা ঘটে।

সীতাকুণ্ড ফায়ার স্টেশনের জ্যেষ্ঠ স্টেশন কর্মকর্তা নুরুল আলম দুলাল বলেন, পুড়ে যাওয়া গাড়ির চালক জানান- ৮ থেকে ১০ জন ব্যক্তি চলন্ত গাড়িটিকে মহাসড়কে দাঁড় করাতে বাধ্য করেন। এরপর চালক ও তার সহকারীকে গাড়ি থেকে নামিয়ে পেট্রোল বোমা ছুঁড়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এদিকে, গাজীপুরের দু’টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শুক্রবার দিবাগত রাতে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভান।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফিন বলেন, রাত পৌনে ৩টার দিকে গাজীপুর মহানগরের তেলিপাড়া এলাকার টিএনটি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে আগুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা।

বিদ্যালয়টি ভোটকেন্দ্র নয় বলে জানান ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল আরেফিন ।

অন্যদিকে, বাসন থানা এলাকার পূর্ব চন্দনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রাত দেড়টার দিকে স্কুলের জানালা দিয়ে একটি রুমের আলমারিতে পেট্রোল ছুড়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

এছাড়া, সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থানাধীন লালাবাজারে একটি ট্রাকে আগুন দেয়া হয়। শুক্রবার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী এক সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালক জানান, সিলেটগামী একটি ট্রাক লালাবাজারের আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ানের ক্যাম্পের পাশে পৌঁছামাত্র আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

দক্ষিণ সুরমা থানার সহকারী ডিউটি অফিসার জাবেদ বলেন, ট্রাকে আগুন লাগার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে এবং ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ফায়ার সার্ভিসের তথ্য

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স জানিয়েছে, শনিবার সকাল ১০টা পর্যন্ত ১৬ ঘণ্টায় অন্তত ৬টি গাড়ি ও ১০টি স্থাপনায় আগুন দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার রাতে রাজধানীর গোপীবাগ এলাকায় বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেনে দুর্বৃত্তরা আগুন দিলে ৪ জন নিহত হন। এছাড়া দুটি পিকআপ, একটি ট্রাক ও দুটি কাভার্ডভ্যানে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

মিডিয়া সেলের স্টেশন অফিসার তালহা বিন জসিম এ তথ্য জানিয়েছেন।তিনি বলেন, স্থাপনাগুলোর মধ্যে একটি বৌদ্ধ মন্দির ও একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

যা বললেন ওবায়দুল কাদের

জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জনে বিএনপির আহ্বানের সঙ্গে চলমান নাশকতার মধ্যে কোনো যোগসূত্র আছে কি না; তা তদন্ত করে দেখতে হবে বলে উল্লেখ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শনিবার (৬ জানুয়ারি) সকালে নিজ নির্বাচনী এলাকায় সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। এ সময় তিনি বিএনপি-জামায়াতের গুজব ও অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হয়ে নির্ভয়ে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “আমরা গভীর ক্ষোভ ও উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, ৭ জানুয়ারির নির্বাচন সামনে রেখে বিএনপি ও তাদের মিত্ররা নাশকতা, অগ্নিসংযোগসহ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড শুরু করেছে।”

বেনাপোল এক্সপ্রেসে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় নিন্দা জানান তিনি। বলেন, “বিএনপি-জামায়াত দেশকে ধ্বংস করতে চায়। তারা মানুষ পুড়িয়ে রাজনীতি করতে চায়।”

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নির্বাচন বর্জনের ডাক দিয়েছে এবং প্রতিনিয়ত নির্বাচন বিরোধী অপপ্রচার চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, “বাংলাদেশ কখনো কোনো অশুভ শক্তির কাছে মাথা নত করেনি এবং ভবিষ্যতেও করবে না।”

বিএনপি যাতে নাশকতা চালাতে না পারে সেজন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সজাগ থাকার আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।

 

দেশে ৭১ দিনে ৩০৩টি অগ্নিকাণ্ড, নিহত ৮

Image not found

সারাদেশে সবশেষ ৭১ দিনে দুর্বৃত্তদের দেওয়া মোট ৩০৩টি আগুনের সংবাদ পায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স। গত ২৮ অক্টোবর থেকে ৬ জানুয়ারি সন্ধ্যা পর্যন্ত এ ঘটনাগুলো ঘটে। এসব ঘটনায় সারাদেশে ৮ জন নিহত ও ৫ জন আহত হয়েছেন।

এ ছাড়া এসব অগ্নিকাণ্ডে ৩০২টি যানবাহন ও ২৩টি স্থাপনা পুড়ে যায়। এসব অগ্নিকাণ্ড নির্বাপণ করতে সারাদেশে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ৫৩৯টি ইউনিট ও ২ হাজার ৯৫৯ জন কাজ করে।

আজ শনিবার সন্ধ্যায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সদর দপ্তর থেকে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে, পর্যালোচনায় দেখা যায় যানবাহনের মধ্যে মোট বাস ১৭৬টি, ট্রাক ৪৯টি, কাভার্ড ভ্যান ২৫টি, মোটরসাইকেল ২১টি, পিকআপভ্যান ১০টি, ট্রেন পাঁচটি, সিএনজিচালিত অটোরিকশা তিনটি, প্রাইভেটকার তিনটি, মাইক্রোবাস তিনটি,লেগুনা তিনটি, নছিমন একটি, ফায়ার সার্ভিসের পানিবাহী গাড়ি একটি, পুলিশের গাড়ি একটি, অ্যাম্বুলেন্স একটি।

অপরদিকে, ২৩টি স্থাপনার মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নয়টি, বিএনপি অফিস পাঁচটি, আওয়ামী লীগ অফিস একটি, পুলিশ বক্স একটি, কাউন্সিলর অফিস একটি, বৌদ্ধ মন্দির একটি, বিদ্যুৎ অফিস দুটি, বাস কাউন্টার একটি ও দুটি শোরুম রয়েছে।

পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ২৮ অক্টোবর ২০২৩ থেকে ৬ জানুয়ারি ২০২৪ পর্যন্ত এই ৭১ দিনের মধ্যে ৪৭ দিন অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। বাকি ২৪ দিন কোনো অগ্নিকাণ্ড ঘটেনি। এর মধ্যে অক্টোবর মাসে এক দিন, নভেম্বর মাসে তিন দিন, ডিসেম্বর মাসে ১৭ দিন, জানুয়ারি মাসে তিন দিন কোনো অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেনি।

অপরদিকে দেখা গেছে, ২৮ অক্টোবর থেকে ৬ জানুয়ারি (সন্ধ্যা ৬টা) পর্যন্ত উচ্ছৃঙ্খল জনতা কর্তৃক সবচেয়ে বেশি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে ঢাকা সিটি করপোরেশন এলাকায়। এ ছাড়া দেশের ৪৩টি জেলায় আগুনের ঘটনা ঘটে। বাকি ২১টি জেলায় উচ্ছৃঙ্খল জনতা কর্তৃক কোনো অগ্নিকাণ্ডের সংবাদ ফায়ার সার্ভিস পায়নি।

 

পর্যালোচনায় দেখা গেছে, দেশে ৯০টি উপজেলায় উচ্ছৃঙ্খল জনতা কর্তৃক অগ্নিকাণ্ডের সংবাদ পায় ফায়ার সার্ভিস এবং বাকি ৪০৫টি উপজেলায় কোনো আগুনের সংবাদ পায়নি।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ঢাকা সিটিতে ১৩৭টি, ঢাকা বিভাগে ৫৭টি, চট্টগ্রাম বিভাগে ৩৫টি, রাজশাহী বিভাগে ৩৮টি, বরিশাল বিভাগে নয়টি, রংপুর বিভাগে ১০টি, খুলনা বিভাগে পাঁচটি, ময়মনসিংহ বিভাগে ছয়টি, সিলেট বিভাগে ছয়টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ঢাকা সিটি করপোরেশনের ১৩৭টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় আগুনের ঘটনা সবচেয়ে বেশি ঘটেছে। ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে ৮৯টি, ঢাকা উত্তর সিটিতে ৪৮টি আগুনের ঘটনা ঘটে। এলাকাভিত্তিক পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মিরপুরে এলাকায় আগুনের ঘটনা সবচেয়ে বেশি। মিরপুরে ১৯টি, গুলিস্তানে ১৪টি, নয়াপল্টন-কাকরাইল এলাকায় আটটি, খিলগাঁও-মুগদা এলাকায় ১৪টি, পোস্তাগোলা-যাত্রাবাড়ী ১৪টি, মতিঝিল-আরামবাগ ছয়টি, মোহাম্মদপুর আটটি ও বারিধারায় ছয়টি আগুনের ঘটনা ঘটে।

এদিকে, জেলাভিত্তিক পরিসংখ্যানে দেখা যায় গাজীপুর জেলায় সবচেয়ে বেশি আগুনের ঘটনা ঘটেছে। গাজীপুরে ৩০টি, চট্টগ্রামে ১৮টি, বগুড়ায় ১৫টি, নারায়ণগঞ্জে সাতটি, সিরাজগঞ্জে ছয়টি, নাটোরে ছয়টি, বরিশালে পাঁচটি, মানিকগঞ্জে চারটি, ফরিদপুরে চারটি এবং লালমনিরহাটে চারটি আগুনের সংবাদ পায় ফায়ার সার্ভিস।

উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, গাজীপুর সদর উপজেলায় আগুনের ঘটনা সবচেয়ে বেশি। গাজীপুর সদরে ১৪টি, বগুড়া সদরে ১০টি, গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় আটটি, নারায়ণগঞ্জ সদরে পাঁচটি, ফেনী সদরে পাঁচটি আগুনের ঘটনা ঘটে।

পূর্বের খবরবাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে যা বলছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম
পরবর্তি খবরদেশে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু