দেশের যেসব জেলায় তীব্র শীতের মাঝেই বৃষ্টি হতে পারে

66
ঢাকাঃ শীতের তীব্রতা কিছুটা কমলেও ঠান্ডা কমেনি। গত কয়েকদিনে কুয়াশার তীব্রতাও ছিল দেখার মতো। টানা পাঁচ-সাত দিন সূর্যের দেখা পাননি দেশের বিভিন্ন জেলার মানুষ। রাজধানীতে কয়েক দফা রোদ দেখা গেলেও দিনের বেশির ভাগ সময়ই আকাশ মেঘলা ছিল। এর আগে নতুন বছরের শুরুতে প্রথম শৈত্যপ্রবাহ আঘাত হানে ধীরে ধীরে শীত পড়তে শুরু করে। তাপমাত্রার পারদ নামতে থাকে। এরই মধ্যে বৃষ্টির আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।এর আগে নতুন বছরের শুরুতেই প্রথম শৈত্যপ্রবাহ হানা দেওয়ার সময় থেকেই ধীরে ধীরে জেঁকে বসতে শুরু করে শীত। সঙ্গে নিচে থামতে থাকে তাপমাত্রার পারদ। এরই মধ্যেই বৃষ্টির আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়া অধিদপ্তর সোমাবার (১৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৬টায় আগামী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়া পরিস্থিতি তুলে ধরেছে। সেই বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে, যার বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, এদিন অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। রাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে এবং এটি কোথাও কোথাও দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। কুয়াশার কারণে বিমান চলাচল, অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন এবং সড়ক যোগাযোগে সাময়িক ভাবে বিঘ্ন ঘটতে পারে।

মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, দিনাজপুর, বরিশাল ও ভোলা জেলার ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা কিছু কিছু জায়গায় থেকে প্রশমিত হতে পারে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। দেশের অনেক জায়গায় দিনে ঠান্ডা পরিস্থিতি বিরাজ করতে পারে।

মঙ্গলবারের (১৬ জানুয়ারি) পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, খুলনা বিভাগে হালকা বৃষ্টি বা গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে। এ ছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। রাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে এবং এটি কোথাও কোথাও দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। কুয়াশার কারণে বিমান চলাচল, অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন এবং সড়ক যোগাযোগে সাময়িকভাবে বিঘ্ন ঘটতে পারে। সারাদেশে বাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। দেশের কোথাও কোথাও দিনে ঠান্ডা পরিস্থিতি বিরাজ করতে পারে।

এ ছাড়া বুধবার (১৭ জানুয়ারি) পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগে হালকা বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এ ছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে এবং এটি কোথাও কোথাও দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। কুয়াশার কারণে বিমান চলাচল, অভ্যন্তরীণ। নৌ পরিবহন এবং সড়ক যোগাযোগে সাময়িক ভাবে বিঘ্ন ঘটতে পারে।

তাপমাত্রা। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা (১-২) ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। দেশের কোথাও কোথাও দিনে ঠান্ডা পরিস্থিতি বিরাজ করতে পারে।

আগামী পাঁচ দিনের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এ সময়ের শুরুর দিকে বৃষ্টিপাত হতে পারে। রাতের তাপমাত্রা হ্রাস পেতে পারে।

পূর্বের খবরবাংলাদেশ ‘এক চীন’ নীতিতে অটল রয়েছে
পরবর্তি খবরগ্যাসের তীব্র সংকটে উৎপাদন ব্যাহত শিল্প-কারখানায়,বাসা-বাড়ির চুলা জ্বলছে না