দেশের ব্যাংকগুলোর গ্রামাঞ্চলে আমানত কমেছে, বেড়েছে শহরে

88

ঢাকাঃ বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলে, ব্যাংকগুলোতে আমানত কমেছে ২২ দশমিক ৫৬ শতাংশ। অপরদিকে, শহরাঞ্চলে ৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ আমানত বেড়েছে। আর, তিন মাসের ব্যবধানে ১ কোটি টাকার বেশি আমানতের অ্যাকাউন্ট সংখ্যা বেড়েছে ৩২টি।

মঙ্গলবার (১২ ডিসেম্বর) প্রকাশিত বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ প্রতিবেদনে এই তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ব্যাংক আমানতকারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ১৫ কোটি। এর মধ্যে ১ লাখ ১৩ হাজার ৫৮৬ টি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ১ কোটি টাকা বা তার বেশি আমানত রয়েছে।

এসব অ্যাকাউন্টে জমা হয়েছে প্রায় ৭ লাখ ২৬ হাজার কোটি টাকা। এই হিসাব অনুয়ায়ী, বাংলাদেশের ব্যাংকিং খাতে মোট আমানতের ৪২ দশমিক ৩৫ শতাংশ এ ধরনের অ্যাকাউন্টধারীর।

আর, ২০২৩ সালের জুন মাস পর্যন্ত মোট আমানতকারীর সংখ্যা ছিলো ১৪ কোটি ৫৯ লাখ এর বেশি। এসব অ্যাকাউন্টে আমানতের পরিমাণ ১৬ লাখ ৮৭ হাজার কোটি টাকা। ১ কোটি টাকার বেশি আমানতের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ছিলো ১ লাখ ১৩ হাজার ৫৫৪টি ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়, তিন মাসের ব্যবধানে ১ কোটি টাকা বা তার বেশি টাকার অ্যাকাউন্টের সংখ্যা বেড়েছে ৩২টি এবং এক বছরের ব্যবধানে বেড়েছে ৭ হাজার ৬৬টি।

ন্যূনতম সুদের হার বাতিল

এদিকে, আমানতের জন্য আরোপিত ন্যূনতম সুদের হার বাতিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এখন থেকে ব্যাংকগুলো তাদের ব্যবসায়িক স্বার্থের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সুদের হার নির্ধারণ করতে পারবে। সে অনুযায়ী আমানত সংগ্রহ করতে পারবে তারা।

মঙ্গলবার (১২ ডিসেম্বর) এক সার্কুলারের মাধ্যমে এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক।বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগের এই প্রজ্ঞাপন, অবিলম্বে বাস্তবায়নের জন্য বাণিজ্যিক ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়; আগে আমানতের ন্যূনতম সুদের হার নির্ধারণ করা হয়েছিলো। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশের সব বাণিজ্যিক ব্যাংককে, ফিক্সড ডিপোজিটের সুদের হার মুদ্রাস্ফীতির নিচে না রাখার নির্দেশনা দেয়।

সে সময় ঋণ বিতরণে সর্বোচ্চ সুদের হার ছিল ৯ শতাংশ। এখন ঋণের ক্ষেত্রে এ ধরনের কোনো সীমা নেই। চলতি বছরের জুলাই মাসে ঋণের জন্য বাজারভিত্তিক সুদের হার ব্যবস্থা চালু করা হয়। ফলে, আমানতের ওপর ন্যূনতম সুদের হারেরও প্রয়োজন নেই।

এ কারণে, ২০২১ সালের ৮ আগস্টের নির্দেশনা বাতিল করা হয়েছে বলে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

পূর্বের খবরসারাদেশে পিএইচডিধারীর সংখ্যা অর্ধ লক্ষেরও অধিক, ২০-২৪ বছর বয়সী ৭৮৩ জন
পরবর্তি খবরএকতরফা নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন করার প্রয়োজন হচ্ছে কেন?