দলের চেয়ে ব্যক্তি বড় নয়’ তামিম ইস্যুতে হাথুরু

34

খেলাধূলা ডেস্ক:

ওয়ানডে বিশ্বকাপের মাস তিনেক আগে হঠাৎ অবসরের ঘোষণা দেন তামিম ইকবাল, তখন আফগানিস্তানের বিপক্ষে ঘরের মাঠে সিরিজ চলছিল। এরপর অনেক কিছু ঘটে গেছে। প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধে অবসর ভেঙে ফেরেন তামিম, খেলতে যাওয়ার কথা ছিল বিশ্বকাপেও।

কিন্তু সাকিব আল হাসান নেতৃত্ব পাওয়ার পর ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে ঝামেলা এবং নানা অসন্তোষের কারণে বিশ্বকাপ থেকে সরে দাঁড়ান তামিম। আসলে কী হয়েছিল তামিমের সঙ্গে?

শুরুতে আফগানিস্তান সিরিজের মাঝপথে সরে যাওয়া এবং পরে বিশ্বকাপের আগে নিজের নাম প্রত্যাহার। তামিম ইস্যু নিয়ে এখনও বড় আলোচনা বাংলাদেশের ক্রিকেটে।

তামিম পুরোপুরি ফিট নন, তাই আফগানিস্তান সিরিজ চলার সময়ই নাকি বিসিবিপ্রধান নাজমুল হাসান পাপনকে ফোন করে অভিযোগ জানিয়েছিলেন হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। পরে বিসিবিপ্রধানও গণমাধ্যমের সামনে তামিমকে কাঠগড়ায় দাঁড় করান। এরপরই অবসরের ঘোষণা দেন তামিম।

আসলে কী হয়েছিল? মূল ঘটনাটা কী? ‘ক্রিকইনফো’র সঙ্গে সাক্ষাৎকারে হাথুরু দাবি করলেন, তিনি এসব ব্যাপারে কিছুই জানতেন না।

হাথুরু বলেন, ‘কী ঘটেছিল? আমি আপনাকে জিজ্ঞেস করছি। আমি এর আগে কিছুই শুনিনি। সত্যি করে বলতে, আমি আজও জানি না কেন সে (তামিম) অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।’ আপনার কি এরপর তামিমের সঙ্গে কথা হয়েছে? হাথুরুর জবাব, ‘না।’

বোর্ড কি আপনাদের দুজনকে কথা বলানোর চেষ্টা করেছিল? এমন প্রশ্নে হাথুরু বলেন, ‘সে অবসর নিয়েছে এবং বিষয়টি এমন পর্যায়ে চলে গেলো যে আমাদের কিছুই করা ছিল না। এটার পর আমি দলের প্রতি ফোকাস দেই। আপনারা জানেন, আমি সবসময়ই এটা বলি-কোনো ব্যক্তিই দলের চেয়ে বড় নয়।’

তামিমের এই হঠাৎ অধিনায়কত্ব ছাড়া, অবসর এবং তারপর ফিরলেও বিশ্বকাপ দল থেকে সরে যাওয়া-ভারত বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের ওপর এটারই প্রভাব পড়েছিল কিনা?

হাথুরুর জবাব, ‘যদি আপনি এভাবে এত বড় পরিবর্তন (অধিনায়কত্ব) করেন, অবশ্যই এটা প্রস্তুতিতে ব্যাঘাত ঘটাবে। অন্য দলগুলো তিন বছর আগে থেকে পরিকল্পনা করছিল। বিশ্বকাপের আগে এমন ঘটনা, অবশ্যই দলের ওপর এর কিছু (প্রভাব) পড়তে বাধ্য। এবাদতের ইনজুরিও বড় ধাক্কা ছিল। এই ধরনের উইকেটে আমরা তাকে মিস করেছি।’

পূর্বের খবরসদ্য কারামুক্ত শরিফুল আলমের বাসায় মঈন খান
পরবর্তি খবরঅবাধে চলছে বায়ু দূষণ