অর্থসংকটে ভুগছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড

31

খেলাধূলা ডেস্ক:

ক্রিকেট অঙ্গনে সময়গুলো ভালো যাচ্ছে না ওয়েস্ট ইন্ডিজের। বিশ্বকাপ ইতিহাসের প্রথম দুই আসরের শিরোপাজয়ী দল ২০২৩ সালের ভারত বিশ্বকাপের আসরে খেলতেই পারেনি। কোয়ালিফায়ারে নেদারল্যান্ডসের মতো দুর্বল দলের বিপক্ষে হেরে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পায়নি তারা।

নৈপথ্যে কারণটাও অনুমিতই, অর্থের অভাব। যে কারণে, দলের বড় তারকাদের জাতীয় দলে খেলায় মন নেই। নিজেদের আর্থিক নিরাপত্তার সন্ধানে তাদের মনোযোগ বিদেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি খেলায়। এবার বোর্ডের অর্থাভাব নিয়ে প্রকাশ্যেই কথা বললেন প্রধান নির্বাহী জনি গ্রেভ।

গ্রেভ জানিয়েছেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বোর্ড (আইসিসি) আগে রাজস্বের ৭ শতাংশ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দিতো। কিন্তু বর্তমানে সেটা ৫ শতাংশে নামিয়ে এনেছে সংস্থাটি। যে কারণে, আইসিসির সমালোচনাও করেছেন তিনি।

উইজডেন ক্রিকেটকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে আইসিসির এমন কাণ্ডে হতাশা প্রকাশ করেছেন গ্রেভ। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আগের মতো একটি শক্তিশালী দলে পরিণত করতে ক্রিকেটবিশ্বের কাছে সহায়তার আবেদনও জানিয়েছেন তিনি।

গ্রেভ বলেন, ‘আমরা যদি সত্যিকার অর্থে একটি শক্তিশালী ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট চাই, তাহলে সেটি করা খুব কঠিন হবে না। শুধু একটু সহায়তা দরকার। আইসিসি আরও সহায়তা দিতে পারে। কিন্তু আমাদের রাজস্ব ৭ শতাংশ থেকে কমে ৫ শতাংশে এসেছে। যা দিয়ে আমাদের পক্ষে চলা কঠিন।’

বিশ্বকাপে খেলতে না পারলেও ক্রিকেটের সবচেয়ে জমজমাট আসর শেষ হওয়ার পর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এর পরপরই অস্ট্রেলিয়ার ঘরের মাঠে ২৭ বছর পর টেস্ট জয় করার কৃতিত্ব দেখিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজ শেষ করেছে ১-১ সমতায়।

ক্যারিবীয়দের চোখ এখন আগামী ১ জুনে শুরু হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। আসরটি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যৌথভাবে আয়োজন করবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২ তারিখে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে খেলতে নামবে ক্যারিবীয়রা।

পূর্বের খবরবাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা টি-টোয়েন্টি সিরিজের ট্রফি উন্মোচন
পরবর্তি খবরঅভিমানে অবসরের ঘোষণা, ফের খেলায় ফিরছেন নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটার!